দেশজুড়ে

জিয়ার আদর্শ ধারণ করে এগিয়ে যেতে হবে: বক্তারা

ফারুক হোসেন: চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সভা অনুষ্টানে অতিথিরা বলেন, কোনো বিভক্তি বা বিভাজনের চিন্তা না করে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের আদর্শকে অনুসরণের মাধ্যমে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান। তারা আরো বলেন, হতাশ না হয়ে বিএনপিকে আরো শক্তিশালী সংগঠনে পরিণত করে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে বাংলাদেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নেয়ার চেষ্টা করতে হবে।

শনিবার (২৮আগস্ট) সকালে চাঁদপুর জেলা বিএনপির আহবায়কের বাড়িতে উপজেলা বিএনপির সভাপতি এড.ফজলুল হক সরকার হান্নানের সভাপতিত্বে সাধারন সম্পাদক নুরুল হক জিতু’র সঞ্চালনায় সভা উদ্বোধনীয় বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির আহবায়ক শেখ ফরিদ আহাম্মদ মানিক।

সাধান সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চ্যুয়ালি বক্তব্য বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ড.জালাল উদ্দিন বলেন, শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সাথে বাংলাদেশের স্বাধীনতার অস্তিত্ব মিশে আছে। তিনি বাংলাদেশের নতুন পরিচয় দিয়েছিলেন। তিনি তার ১৯ দফার দর্শনে বাংলাদেশের সবকিছু তুলে ধরেছেন। যারা স্বাধীনতার নেতৃত্ব দিয়েছেন বলে দাবি করে তারা সেদিন দেশের গণতন্ত্র ধ্বংস করেছিল। অর্থনীতি আবদ্ধ করে রেখেছিল। শহীদ জিয়া সেসব মুক্ত করে দেশের মানুষকে নতুন পথ দেখিয়ে গেছেন। সে পথেই আজকে বাংলাদেশ এগোচ্ছে। গণমাধ্যমের স্বাধীনতা দিয়েছিলেন তিনি। আজকের উন্নত কৃষি তথা উচ্চ ফলনশীল ধান চাষের ব্যবস্থা তিনিই করেছেন।

তিনি আরো বলেন, শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান আন্তর্জাতিক সম্পর্ক উন্নয়নে ছিলেন সফল। তার নেতৃত্বে জাপানকে পরাজিত করে বাংলাদেশ জাতিসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য হয়েছিল। বাংলাদেশকে গণতান্ত্রিক রাজ্যে প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন। তার অসমাপ্ত কাজ ও স্বপ্ন পূরণের জন্য দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া নেতৃত্ব দিচ্ছেন। তিনি শহীদ জিয়ার পতাকা সমুন্নত রাখতে পথে প্রান্তরে ছুটে বেরিয়েছেন। আজকে বিএনপি খালেদা জিয়া সম্পূর্ণ মিথ্যা মামলায় হয়রানি করা হচ্ছে । যারা গণতন্ত্র ও মৌলিক অধিকারে বিশ্বাস করে না, তারা আজকে বেগম জিয়াকে কারা অন্তরীণ করে রেখেছে। আর এটা করেছে একটি কারণে, তারা বেগম জিয়াকে ভয় পায়।

ড. জালাল আরো বলেন, আজকে সরকার বাংলাদেশকে একটি ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায় পরিকল্পিতভাবে। আসুন আমরা হতাশ না হয়ে বিভক্তি ও বিভাজনের চিন্তা করব না। আমরা শহীদ জিয়ার রাজনীতিকে অনুসরণ করে বিএনপিকে আরো শক্তিশালী সংগঠনে পরিণত করে বাংলাদেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নেয়ার চেষ্টা করব। ঐক্যবদ্ধভাবে সামনের দিকে এগিয়ে যাই গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করত

সাধারন সভায় অন্যনাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক সেলিম উল্যা সেলিম, মুনির চৌধুরী, ছেংগারচর পৌর বিএনপির সভাপতি মোঃ নান্না মিয়া প্রধান, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রধান,উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারন সম্পাদক আলমগির সরকার,উপজেলায় বিএনপির সহ-সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম প্রধান, সাংগঠনিক সম্পাদক মিয়া মনজুর আহম্মদ স্বপন, উপজেলা যুবদলের আহবায়ক খায়রুল হাসান বেনু সহ উপজেলা ও পৌরসভার শীর্ষ স্থানীয় নেতাবৃন্দ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button