তথ্য ও প্রযুক্তি

বাংলাদেশে সফলভাবে শেষ হলো লাইকি’র ম্যাজিকবাউলিয়ানা চ্যালেঞ্জ

সম্প্রতি বাংলাদেশে ম্যাজিকবাউলিয়ানা নামে একটি রোমাঞ্চকর হ্যাশট্যাগ চ্যালেঞ্জের আয়োজন করেছে জনপ্রিয় শর্টভিডিও প্ল্যাটফর্ম লাইকি। ব্যবহারকারীদের মাঝে দুর্দান্ত সাড়া পেয়েছে লাইকি’র এই হ্যাশট্যাগ চ্যালেঞ্জ।
ভিন্ন ভিন্ন মাধ্যমের সমন্বয়ে বাংলা ফোক অর্থাৎ লোক সঙ্গীতের আবেদনকে ব্যবহারকারীদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে এবং একে আরও আনন্দময় করে তুলতে দেশের টিভি রিয়্যালিটি শো ‘ম্যাজিক বাউলিয়ানা’র সাথে একযোগে এই ম্যাজিকবাউলিয়ানা ক্যাম্পেইনটি চালু করে লাইকি; যা ব্যাপক সফলতা অর্জন করতে সক্ষম হয়।

উদ্ভাবনী ও প্রতিযোগিতাপূর্ণ এ ক্যাম্পেইনে আঞ্চলিক নাচ এবং বাছাই করা গানের সংমিশ্রণে ব্যবহারকারীদের অংশগ্রহণের উৎসাহ তৈরি করা হয়। সৃজনশীলতার ধারা, বৈচিত্র্যময় নির্মাণ, প্রিমিয়াম রিসোর্স এবং সামাজিক মাধ্যমে আলাপ-আলোচনা সৃষ্টির মধ্য দিয়ে ক্যাম্পেইনটিতে চমৎকার সব পরিবেশনা যুক্ত হয়।

ম্যাজিকবাউলিয়ানা চ্যালেঞ্জটি ব্যবহারকারীদের জন্য এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে, যাতে ব্যবহারকারীদের জন্য একটি আলোকিত ও সুসজ্জিত মঞ্চে বিভিন্নরকম নাচ ও গান পরিবেশন করার সুযোগ তৈরি হয়। জনপ্রিয় বহু কনটেন্ট নির্মাতারা এই ক্যাম্পেইনে অংশ নিয়ে তাদের ভেতরের সৃষ্টিশীল সত্ত্বাকে জাগ্রত করে নাচ-গানের মাধ্যমে নিজেদেরকে তুলে ধরেন। তাদের পাশাপাশি সাধারণ ব্যবহারকারীরাও নিজেদের ভিডিও তৈরির মাধ্যমে এই চ্যালেঞ্জে অংশগ্রহণ করেছেন।

কম্যুনিটিতে কনটেন্ট তৈরিকে আরও জনপ্রিয় করতে, ম্যাজিক বাউলিয়ানার জন্য একটি আলাদা অ্যাকাউন্ট চালু করে লাইকি; যার মাধ্যমে ভালো ভালো হ্যাশট্যাগ ভিডিওগুলোকে আরও বেশি ছড়িয়ে দিয়ে সচেতনতা তৈরিতে ভূমিকা রাখা যায়। এই উদ্যোগ ব্যবহারকারীদের নতুন ফ্যান পেতে সাহায্য করার পাশাপাশি ম্যাজিক বাউলিয়ানার প্রভাবকেও আরো প্রসারিত করতে ভূমিকা রেখেছে। এক্ষেত্রে জিয়া উদ্দিন রবিন এবং আনিকা রিফা’র মতো ১৯ জন ইনফ্লুয়েন্সারের সাথে যুক্ত হয় লাইকি। তরুণ প্রজন্মের ওপর ইতিবাচক প্রভাব বিস্তার করতে এবং লাইকি’তে ব্যবহারকারীদের সম্পৃক্ততা আরও বাড়াতে এই ইনফ্লুয়েন্সারদের সহায়তা নেয়া হয়।

এই ক্যাম্পেইনের সবচেয়ে সেরা অংশটি হলো, এতে অংশ নেওয়া ব্যবহারকারীরা তাদের ভিডিওতে খুব সহজেই অফিসিয়াল মিউজিক যুক্ত করতে পেরেছেন। এর মাধ্যমে বাংলা লোক সঙ্গীতের গভীরতা ও শৈল্পিক গুরুত্ব প্রসঙ্গে সামাজিক মাধ্যমে আলোচনার ক্ষেত্র তৈরি হয়, পাশাপাশি ম্যাজিক বাউলিয়ানা ক্যাম্পেইনে অংশ নেয়ার জন্য ব্যবহারকারীদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়।

হ্যাশট্যাগ ক্যাম্পেইনটি ২০ থেকে ২৫ মে, ২০২২ পর্যন্ত চালু ছিল। ৩৬ মিলিয়ন ইম্প্রেশন সংগ্রহের পাশাপাশি ক্যাম্পেইনটি ১৩.৮ মিলিয়ন ভিডিও ভিউ, ১৯ হাজার ভিডিও পোস্ট এবং ৮ শতাংশ এঙ্গেজমেন্ট তৈরি করতে সক্ষম হয়। ক্যাম্পেইনের প্রাথমিক উদ্দেশ্য ছিল একটি উৎসবমুখর পরিবেশে সবাইকে সম্পৃক্ত করা। পাশাপাশি ম্যাজিক বাউলিয়ানা শো’য়ের মাধ্যমে বড় পরিসরে সকলের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির মাধ্যমে তরুণ প্রজন্মের ওপর প্রভাব বিস্তারও এর অন্যতম উদ্দেশ্য ছিল।

লাইকি’র গ্লোবাল অপারেশনস হেড গিবসন ইউয়েন বলেন, “ম্যাজিক বাউলিয়ানার সাথে একসাথে কাজ করতে পেরে এবং ক্যাম্পেইন এর মাধ্যমে এমন অপ্রত্যাশিত সাফল্য অর্জন করতে পেরে আমরা আনন্দিত। লাইকির ব্যবহারকারীদের জন্য আমরা সচেতনভাবেই এমন সব কনটেন্ট নির্মাণের সুযোগ তৈরি করে থাকি, যাতে এর মাধ্যমে কম্যুনিটি উপকৃত হতে পারে; এবং এর সাথে যুক্ত হয়ে ব্যবহারকারীরা কম্যুনিটিতে সংহতি এবং নিজস্ব পরিচয় তৈরি করে নিতে পারে”।
বাংলাদেশে লাইকি’র প্রতিনিধিদের মধ্যে অন্যতম ব্যবসায়িক অংশীদার অ্যাডা এশিয়া। অ্যাডা এশিয়ার কান্ট্রি ডিরেক্টর আশরাফুল হক বলেন, “শর্ট ভিডিও প্লাটফর্ম হিসেবে লাইকি বাংলাদেশে তরুণ প্রজন্মের কাছে বেশ জনপ্রিয়। আমরা লাইকির রিসেলার হিসেবে প্রথম এবং সবচাইতে সফল কমার্শিয়াল হ্যাশট্যাগ চ্যালেঞ্জ ম্যাজিক বাউলিয়ানা সফলভাবে সম্পন্ন করতে পেরে অত্যন্ত আনন্দিত। তরুণ প্রজন্মের কাছাকাছি পৌঁছানোর জন্য এই হ্যাশট্যাগ চ্যালেঞ্জটি একটি উদ্ভাবনী মার্কেটিং সল্যুশন হিসেবে কাজ করবে বলে আশা করছি”।

ব্যবহারকারীদের অনলাইন অভিজ্ঞতা উন্নত করতে এরকম আরও চমৎকার সব উদ্যোগ নিয়ে হাজির হতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ লাইকি। এই জনপ্রিয় শর্ট ভিডিও প্লাটফর্মটি আশা করে, এর ব্যবহারকারীরা আধুনিক ধাঁচের মাধ্যমে ঐতিহ্যবাহী সঙ্গীতের ব্যবহারকে প্রশংসা করবে এবং এতে অন্তর্নিহিত নতুনের শক্তিকে অনুভব করতে সক্ষম হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button