দেশজুড়ে

মতলবে গাজী মোক্তার আবারো বালু উত্তোলন চেস্টার বিরুদ্ধে মানববন্ধন

মতলব উত্তর প্রতিনিধি: চাঁদপুরের মতলব উত্তরে মেঘনা নদীতে গাজী মোক্তার হোসেন ও তার ভাই সেলিম রেজা বালু উত্তোলনের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছেন এলাকাবাসী ৷

রবিবার (১ আগস্ট ) বিকালে মতলব উত্তর উপজেলার জহিরাবাদ ইউনিয়নের ৭৪ নং সানকিভাংগা সরকারী প্রার্থমিক বিদ্যালয়ের প্রাঙ্গণে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয় ৷

মানববন্ধনে বক্তরা অভিযোগ করে বলেন স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা গাজী মুক্তার হোসেন ও তার ভাই জহিরাবাদ ইউপি’র চেয়ারম্যান গাজী সেলিম রেজা ও তার দলবল নিয়ে মেঘনা নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের জন্য বিভিন্নভাবে পায়তারা করছেন এবং গাজী মোক্তার হোসেন ও গংরা কেউ যেনো মেঘনা নদীতে বালু কাটতে না পারে এ বিষয় চাঁদপুরের জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান ৷

জানা যায়, গত সরকারের আমলে গাজী মোক্তার হোসেন মেঘনা নদীতে বালু উত্তোলন করায় মেঘনা ধনাগোদা সেচ প্রকল্প হুমকির মুখে পরার আশঙ্কায় বালু উত্তোলন বন্ধ করতে স্হানীয় সাংসদ এড. নুরুল আমিন রুহুল সংশ্লিষ্ট দপ্তরে জরুরী ভিত্তিতে দরখাস্ত (ডিউ লেটার) প্রদান করেন।
এছাড়াও মেঘনা নদীতে বালু উত্তোলন বন্ধের জন্য মতলব উত্তর উপজেলার আওয়ামীলীগের সদস্য ও মোহনপুর পর্যটন লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী মিজানুর রহমান বাদী হয়ে মহামান্য হাইকোর্টে রিট পিটিশন করেন। মহামান্য আদালত রিট পিটিশন শুনানি ও পর্যালোচনা করে মতবের বিভিন্ন মৌজার মেঘনা নদীতে স্থায়ীভাবে বালু উত্তোলন বন্ধে আদেশ দেন।

সূত্রে আরো জানা যায়, দীর্ঘদিন মতলবের মেঘনা নদীতে বালু উত্তোলন বন্ধ থাকলেও জহিরাবাদ ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ নেতা গাজী মোক্তার হোসেন ও তার ভাই জহিরাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গাজী সেলিম রেজা নদী থেকে বালু উত্তোলন করতে বিভিন্ন ভাবে পায়তারা করছে। যার প্রেক্ষিতে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সেচ প্রকল্প মেঘনা ধনাগোদা বেরীবাঁধ ও চরাঞ্চলের মানুষের বাড়ী-ঘর রক্ষায় মানববন্ধনের করেছেন জহিরাবাদ ইউনিয়নে জনগন।

এ সময় মানব বন্ধনে বক্তব্য রাখেন জহিরাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মহোন প্রধান, প্রচার সম্পাদাক হারুন সরদার,সাবেক সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দিন কবিরাজ, আওয়ামীলীগ নেতা হাসমত প্রধান, আনা খান,রশিদ প্রধান,যুবলীগ নেতা জাফর আহমেদ,থানা ছাত্রলীগের সদস্য শিপন মোল্লিক প্রমুখ ৷

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button